Wellcome to National Portal
Text size A A A
Color C C C C
সর্ব-শেষ হাল-নাগাদ: ৩০ এপ্রিল ২০১৫

বিদেশে যাওয়ার সময় যাত্রাপথে করণীয়সমূহ

  • বিদেশে যাওয়ার পথে যা যা নিতে হবে তার একটি তালিকা তৈরি করবেন;

  • ক্যারি-অন ব্যাগ বা যে ব্যাগটি বিমানে নিজের সাথে রাখবেন সেখানে টাকা-পয়সা, গহনা, ভ্রমন ও চাকুরী সংক্রান্ত কাগজপত্র রাখবেন;

  • চেক-ইন ব্যাগ বা যে ব্যাগটি বিমানে দেবেন, সে ব্যাগ ওজন করবেন এবং ২০ কেজি ওজনের মধ্যে সীমাবদ্ধ রাখবেন;

  • ব্যাগটি দড়ি বা প্যাকিং টেপ দিয়ে শক্ত করে বেধে নেবেন, যাতে যাত্রাকালীন সময়ে ব্যাগ ছিঁড়ে না যায়;

  • ভ্রমণের জন্য হালকা কিন্তু শক্ত উপাদান দিয়ে তৈরি এবং ভাল তালার ব্যব¯হাসহ ব্যাগ কিনবেন;

  • প্রতিটি ব্যাগে নাম, ঠিকানা ও ফোন নাম্বার লিখে রাখবেন। 

  • বিদেশে যাওয়ার পথে যা যা নিতে হবে তার একটি তালিকা তৈরি করবেন;

  • ক্যারি-অন ব্যাগ বা যে ব্যাগটি বিমানে নিজের সাথে রাখবেন সেখানে টাকা-পয়সা, গহনা, ভ্রমন ও চাকুরী সংক্রান্ত কাগজপত্র রাখবেন;

  • চেক-ইন ব্যাগ বা যে ব্যাগটি বিমানে দেবেন, সে ব্যাগ ওজন করবেন এবং ২০ কেজি ওজনের মধ্যে সীমাবদ্ধ রাখবেন;

  • ব্যাগটি দড়ি বা প্যাকিং টেপ দিয়ে শক্ত করে বেধে নেবেন, যাতে যাত্রাকালীন সময়ে ব্যাগ ছিঁড়ে না যায়;

  • ভ্রমণের জন্য হালকা কিন্তু শক্ত উপাদান দিয়ে তৈরি এবং ভাল তালার ব্যব¯হাসহ ব্যাগ কিনবেন;

  • প্রতিটি ব্যাগে নাম, ঠিকানা ও ফোন নাম্বার লিখে রাখবেন। 

  •  চেক-ইন ব্যাগ, অর্থাৎ যে ব্যাগ লাগেজ হিসেবে বিমানে  দিয়ে দেবেন সেখানে টাকা-পয়সা, গহনা, ভ্রমন ও চাকুরী সংক্রাšত কাগজপত্র এবং অন্যান্য মূল্যবান জিনিস রাখবেন না;

  •  অপরিচিত ব্যক্তির দেয়া কোন জিনিসই বহন করবেন না;

  •  কখনোই ধারালো বস্তু, যেমন- বেড, কাঁচি, ছুরি ইত্যাদি সিকিউরিটি চেকের সময় ধরা পড়ে এবং ফেলে দেয়া হয়;

  • নিষিদ্ধ কোনো জিনিস ব্যাগে নেয়া যাবে না, যেমন-

  • প্লেনে ও এয়ারপোর্টে ধূমপান নিষিদ্ধ,

  • প্লেনে মোবাইল ফোন ও ট্রানজিষ্টার রেডিও ব্যবহার করা নিষেধ।

  • আগ্নেয়াস্ত্র ও বিস্ফোরকজাতীয় পর্দাথ;

  • নিষিদ্ধ মাদক ও ড্রাগ;

  • আগুন ধরে এমন তরল পর্দাথ (লাইটার) ;

  • দুর্গদ্ধ বের হয় এমন পদার্থ;

  • মাংস, দুধ, ডিম ও অন্যান্য পোল্ট্রিজাতীয় খামার, ফুল, ফল, সবজি, পান, গুল, সাদাপাতা ইত্যাদি।

  • ইমিগ্রেশন:  

      কাউন্টারে প্রার্থীর পাসপোর্ট, ভিসা, জনশক্তি ব্যুরোর ছাড়পত্র ইত্যাদি পরীক্ষা করে সঠিক থাকলে কেবল:

      পাসপোর্ট সিলমোহর করে প্রার্থীকে ভেতরে প্রবেশ করার অনুমতি দেয়া হয় এবং

      সেখানে বিমানে আরোহণের পূর্ব পর্যšত অপেক্ষা করতে হয়;

      ইমিগ্রেশনের সামনে লাইন দিয়ে দাঁড়ান,

     আপনার পাসর্পোট, ভিসা, ইমিগ্রেশন/ডিসএম্বারকেশন ও কাষ্টমস ফরমসহ তৈরী থাকুন।

     অফিসার আপনার পাসপোর্টে ওই দেশে গমনের তারিখসহ সিল দিয়ে দেবে।

  • বিমানে কি করবেন:

   বিমানে আরোহণের পূর্বে ইংরেজিতে ও বাংলায় মাইক্রোফোনে ঘোষনা করা হয় এবং

   ডিসপ্লে বোর্ড ও টেলিভিশন মনিটরে দেখানো হয়।

   ঘোষণার পরই বোর্ডিং-কার্ড হাতে নিয়ে বিমানের দিকে অগ্রসর হতে হয়।

  • বিদেশে পোঁছানোর পর বিমানবন্দরে করণীয়:

  ব্যাগ সংগ্রহ

   ব্যাগেজ সংগ্রহের জন্য কনভেয়ার বেল্টের সামনে দাঁড়ান। কনভেয়ার বেল্টের ওপর আপনার ফ্লাইট নাম্বার দেয়া থাকবে, সেটা খেয়াল করুন।

  • কাষ্টমস

আপনার কাষ্টমস ডিক্লারেশন ফরম দিন

কাষ্টমস অফিসার চাইলে ব্যাগ খুলে দেখান।

  • হারানো ব্যাগ খোঁজা:

    বেল্টে ব্যাগ না পাওয়া গেলে বা ব্যাগ হারানো গেলে সাথে সাথে এয়ারলাইন্স কর্তৃপক্ষকে জানান এবং ক্লেইম ফরম পূরণ করুন। প্রয়োজনে তথ্যকেন্দ্রের সহায়তা নিন,

    এয়ারলাইন্স আপনার ব্যাগ খুঁজে বের করে আপনার চুড়ান্ত গšতব্য যোগাযোগ করবে,

    আপনার হারানো ব্যাগ আপনাকে পৌছে দেয়া হবে। না পাওয়া গেলে টিকেটে উল্লিখিত নীতিমালা অনুযায়ী আপনাকে ক্ষতিপূরণ দেয়া হবে।


Share with :

Facebook Facebook